কোন জাতের এবং কোন বয়সের গরু মোটাতাজাকরণে উপযোগী

মোটাতাজাকরণে উপযোগী গরুর জাতের ও বয়স। বীফ ফ্যাটেনিং এর জন্য উন্নত দেশে মাংশল জাত ব্যবহার হয়। সুতরাং দেশে প্রাপ্ত গরু-বাছুর বা সংকর জাতের প্রাণি বিশেষভাবে মূল্যায়ন করে যাচাই-বাছাই করা উচিত এবং যে সময় গরুর বাজার দর কম থাকে সে সময়ে ক্রয় করা উচিত। বীফ ফ্যাটেনিং এর জন্য দেশি জাতের ষাড়, শাহীওয়াল সংকর ও ফ্রিজিয়ান সংকর জাতের ষাড় ক্রয় করা উচিত।

 

 

বীফ ফ্যাটেনিং গরুর বয়স ও জাত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমরা যদি ভালো জাতের গরুকে তার সর্বোচ্চ বৃদ্ধির সময়ে বীফ ফ্যাটেনিং করি তবেই ভালো ফলাফল পাওয়া সম্ভব। আর তাই গরুর দ্রুত বর্ধনশীল জাত ও বৃদ্ধির সময়কাল সম্পর্কে আমাদের সঠিক ধারণা থাকতে হবে।

 

 

মোটাতাজাকরণে উপযোগী গরুর বয়স

গরু মোটাতাজাকরণ তরতে কত বছর বয়সী গরু সংগ্রহ করবেন? যে বয়সের গরুর বৃদ্ধির হার সবচেয়ে বেশি সেই বয়সী সুস্থ্য ষাড় গরু খামারের জন্য সরবরাহ করতে হবে। বীফ ফ্যাটেনিং কর্মসূচীর জন্য ২.৫-৪ বৎসরের এড়ে/ষাড় গরু ক্রয় করা উচিত।

 

 

যদিও এড়ে বাছুরের বয়স নিয়ে দ্বিমত রয়েছে। কেউ কেউ এড়ে বাছুরের বয়স ১.৫-২ বছর হওয়া উচিত বলে মনে করেন। তবে এই বয়সের প্রাণি প্রচুর খেতে পারে না এবং খেলেও হজম করতে পারে না।

 

 

প্রকৃতপক্ষে এ বয়সের ষাড় গরুর শরীর ঠিকমত বাড়তে ৫/৬ মাস লেগে যায়। এজন্য ২ বছরের উর্দ্ধে এমন প্রাণি হলেই ভাল হয়।

 

 

মোটাতাজাকরণে উপযোগী গরুর জাত

সাধারণত ২-৪ বছরের সংকর জাতের ষাড় গরুর বৃদ্ধির হার অন্যান্য বয়সের তুলনায় বেশী হওয়ায় বীফ ফ্যাটেনিং এর ক্ষেত্রে এ ধরনের বয়সের প্রাণি নির্বাচন করতে হয়।

 

তথ্যসূত্রঃ মিসকাত

ADVERTISE