যৌবন দীর্ঘস্থায়ী করতে খান বড়ই

মৌসুমী ফল কুল। দেখতে যেমন সুন্দর তেমনি এর স্বাস্থ্য উপকারিতাও অনেক। ছোট্ট এই উপাদানটি প্রাকৃতিকভাবে নানাগুণে ভরপুর। যৌবন দীর্ঘস্থায়ী করতেও এই ফলের জুড়ি মেলা ভার! এছাড়া টনসিলের সমস্যা থেকে উচ্চরক্তচাপ এমনকি ডায়াবেটিস পর্যন্ত সারিয়ে দিতে পারে।

 

জেনে নিন এই ফলের একাধিক আশ্চর্য স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে:

 

– ভিটামিন ‘সি’ থাকায় কুল গলার ইনফেকশনজনিত অসুখ যেমন- টনসিলাইটিস, ঠোঁটের কোণে ঘা, জিহ্বাতে ঠাণ্ডাজনিত লালচে ব্রণের মতো ফুলে যাওয়া, ঠোঁটের চামড়া উঠে যাওয়া দূর করে খুব সহজে।

 

– টিউমার সেল, লিউকেমিয়ার বিরুদ্ধেও লড়াই করে।

 

– উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য এই ফল যথেষ্ট উপকারি। রক্ত-শুদ্ধকারক হিসেবে এই ফলের গুরুত্ব অপরিসীম। ডায়রিয়া, ক্রমাগত মোটা হয়ে যাওয়ার হাত থেকেও রেহাই দেয়।

 

– হিমোগ্লোবিন ভেঙে রক্তশূন্যতা তৈরি হওয়া, এমনকি ব্রঙ্কাইটিস পর্যন্ত সারিয়ে দেয়।

 

– মুখে অরুচি, কুল খেয়ে মুখের স্বাদ ফেরান।

 

– বাড়ায় কর্মশক্তি।

 

– কুল শরীরে শক্তি জোগায়।

 

– কুল খেলে কেটে যাবে আপনার অবসাদ।

 

– তারুণ্য ধরে রাখতে এই ফলটির জুড়ি মেলা ভার।

 

Add a Comment

Your email address will not be published.

CAPTCHA