রুই ও মলা মাছের মিশ্র চাষ, লাভ হবে বহুগুন

মাছ চাষ বর্তমানে একটি লাভজনক প্রকল্প। যারা মাছ চাষের সাথে যুক্ত আছেন তারা একই পুকুরে চাষ করতে পারেন মলা-পুটির সাথে রুই জাতীয় মাছ। এই ধরনের মিশ্র চাষ করার পুরো প্রক্রিয়াটি আজ আপনাদের সামনে উপস্থাপন করবো।

পুকুর/মৌসুমী জলাশয় নির্বাচনঃ

দোআঁশ ও এঁটেল দোআঁশ মাটির পুকুর চাষের জন্য উত্তম।
পুকুর/জলাশয় বন্যামুক্ত এবং মাঝারী আকারের হতে হবে।

পর্যাপ্ত সূর্যের আলো পড়ে এমন পুকুর নির্বাচন করতে হবে।
পানির গভরীতা ১-১.৫ মিটার হতে হবে।

পুকুর প্রস্তুতিঃ

পুকুরের পাড় মেরামত ও আগাছা পরিষ্কার করতে হবে।
রাক্ষুসে ও ক্ষতিকর প্রাণী অপসারণের ব্যবস্থা করতে হবে।

পুকুরে শতাংশ প্রতি ১ কেজি করে চুন প্রয়োগ করতে হবে।
চুন প্রয়োগের ৭-৮ দিন পর শতাংশ প্রতি ৫-৭ কেজি গোবর, ১০০ গ্রাম ইউরিয়া এবং ৫০ গ্রাম টিএসপি সার প্রয়োগ করতে হবে।

পোনা মজুদ, খাদ্য ও সার প্রয়োগঃ

শতাংশ প্রতি ১০-১৫ সেমি. আকারের ৩০-৩২ টি রুই জাতীয় পোনা এবং ৫-৬ সেমি. আকারের ৬০ টি মলা ও ৬০ টি পুটি জাতীয় পোনা পুকুরে মজুদ করতে হবে।

মাছের পোনা মজুদের পরদিন থেকে পোনার দেহের ওজনের শতকরা ৫-১০ ভাগ হারে সম্পূরক খাবার হিসেবে খৈল, কুড়া, ভূসি দেওয়া যেতে পারে।

গ্রাস কার্পের জন্য কলাপাতা, বাধা কপির পাতা, নেপিয়ার বা অন্যান্য নরম ঘাস দেওয়া যাবে।
মলা-পুঁটি মাছের জন্য বাড়তি খাবার দরকার নাই।

প্রাকৃতিক খাবার জন্মানোর জন্য পোনা ছাড়ার ১০ দিন পর শতাংশ প্রতি ৪-৬ কেজি গোবর ও ১০০ গ্রাম ইউরিয়া সার প্রয়োগ করতে হবে।

মাছ আহরণঃ

পোনা মজুদের ২ মাস পর হতে ১৫ দিন পর পর বেড় জাল দিয়ে মলা-পুঁটি মাছ আংশিক আহরণ করতে হবে। ৭৫০-৮০০ গ্রাম থেকে বেশি ওজনের কাতল ও সিলভার কার্প মাছ আহরণ করে সমসংখ্যক ১০-১২ সেমি. আকারের পোনা পুনরায় মজুদ করতে হবে। বছর শেষে চূড়ান্ত আহরণ করা যেতে পারে।

তথ্যসূত্রঃ এগ্রিকালচার লারনিং

Add a Comment

Your email address will not be published.

CAPTCHA